1. news.polytechnicbarta@gmail.com : admin :
  2. contact.mdrakib@gmail.com : Rakib Howlader : Rakib Howlader
  3. tanjid.fmphs@gmail.com : Tanjid : Tanjid
বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০১:০৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
বড় জয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরলো টাইগাররা কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অননুমোদিত ফেসবুক পেজ বন্ধ করতে ডিএমপিতে চিঠি কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি মওকুফের নির্দেশ রিসডা ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি-তে আকস্মিক পরিদর্শনে BACI চিফ কো-অর্ডিনেটর পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে দূর্বৃত্তদের হামলা ৪ দফা দাবিতে কুড়িগ্রামে পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন, সমাবেশ ও সড়ক অবরোধ স্থগিত ঘোষণার পরও আন্দোলনে পলিটেকনিক শিক্ষার্থীরা সিলেটে ৪ দফা দাবীতে পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাধা সব ধরনের পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের ৪ দফা দাবীতে বগুড়ায় পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের যে দক্ষতাগুলো থাকা উচিত

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯
  • ৩৮৬ বার পঠিত

নিজেকে দক্ষ করার প্রতি মনোনিবেশ করতে হবে এখনই।

১. যোগাযোগ দক্ষতা

পড়াশোনার বিষয়টা যা-ই হোক, যে ক্ষেত্রেই আপনি ক্যারিয়ার গড়েন না কেন, আপনার মধ্যে যোগাযোগের দক্ষতা থাকা জরুরি। ভাষাগত দক্ষতা, ইতিবাচক শারীরিক ভাবভঙ্গি, লেখার দক্ষতা, গল্প বলার দক্ষতা, রসবোধ, শোনার আগ্রহ, পাবলিক স্পিকিং, সাক্ষাৎকার গ্রহণসহ ই–মেইল লেখা, দক্ষতার সাথে কম্পিউটার পরিচালনা করার দক্ষতা, নিজের বক্তব্য তুলে ধরার যোগ্যতা আয়ত্ত করতে হবে। কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের শুরু থেকেই এসব দক্ষতা বিকাশে মনোযোগ দেওয়া উচিত। যোগাযোগের ক্ষেত্রে নিজেকে আরও দক্ষ করে তুলতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি, দুটো ভাষাতেই আপনাকে দক্ষ হতে হবে।

২. নেতৃত্ব বিকাশ

যেকোনো ক্যারিয়ারেই নেতৃত্ব দেওয়ার গুণ থাকা এখন বিশেষ যোগ্যতা। আপনি ম্যানেজার হতে চান কিংবা দক্ষ কর্মী, আপনার মধ্যে নেতৃত্বের সব গুণ থাকতে হবে। দল গঠনের সক্ষমতা, নেতৃত্বের সুযোগ তৈরি করা, পরামর্শ দেওয়া-নেওয়া, সংঘাত নিরসনের কৌশল জানা, কূটনীতি, মতামত দেওয়া ও নেওয়া, তত্ত্বাবধান করাসহ দূর থেকেই দলকে নিয়ন্ত্রণ করার দক্ষতা আয়ত্ত করতে হবে। সংগঠনে কাজের মধ্য দিয়েও নেতৃত্বের গুণ বিকাশ করা যায়।

৩. পেশাগত দক্ষতা

পেশাগত দক্ষতা বলতে প্রতিষ্ঠান নিয়ন্ত্রণের সক্ষমতা, পরিকল্পনা করা, মিটিং পরিকল্পনা, প্রযুক্তি ব্যবহারে আগ্রহ, পৃথিবীর অন্যান্য দেশগুলোর কোথায় কী হচ্ছে, গবেষণা করার আগ্রহ, ব্যবসায় রীতিনীতি সম্পর্কে জানা, প্রশিক্ষণ নেওয়া ও দেওয়া এবং গ্রাহকসেবার নানা দিক সম্পর্কে জানা এসবই বোঝায়। পেশাগত দক্ষতাগুলো সম্পর্কে জানা থাকলে বিশ্ববিদ্যালয়জীবন শেষে কর্মজীবনে পা রাখলে ভয় কিংবা জড়তা তেমন থাকে না।

৪. ব্যক্তিগত দক্ষতা

আপনি কতটা ইতিবাচক মানুষ কিংবা নেতিবাচক পরিবেশে নিজেকে কতটা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন, তার ওপর নির্ভর করছে আপনার ব্যক্তিত্ব। ব্যক্তিগত দক্ষতা বলতে ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্স বা বুদ্ধিবৃত্তিক আবেগ, ব্যক্তি সচেতনতা, আবেগের নিয়ন্ত্রণ, আত্মবিশ্বাস, উৎসাহ, আপনি কতটা সহানুভূতিশীল এবং বন্ধুত্বপূর্ণ এসবই বোঝায়। আপনি কেমন মানুষ, আগে তা খুঁজে বের করতে হবে, তারপর কোথায় কোথায় দুর্বলতা তা বের করে নিজেকে শোধরাতে হবে।

৫. সমস্যা সনাক্তকরণ, সমাধান ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ

আমরা সমস্যা নিয়ে ভাবতে পছন্দ করি। সমস্যা নিয়ে ভাবতে ভাবতে সমাধান নিয়ে ভাবনার সুযোগই পাই না। কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয় জীবন থেকেই সমস্যা সমাধানের বিভিন্ন কৌশল সম্পর্কে জানতে হবে। সমস্যা সমাধানের জন্য গণিত ও যুক্তির বিভিন্ন কৌশল আয়ত্ত করতে হবে। সিদ্ধান্ত গ্রহণে আবেগের চেয়ে যুক্তি ও বাস্তবতার দিকে খেয়াল রাখতে শিখতে হবে।

সূ্ত্র : চট্রগ্রাম পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট ফেসবুক পেজ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © polytechnicbarta.com
Theme Customized BY LatestNews