1. news.polytechnicbarta@gmail.com : admin :
  2. contact.mdrakib@gmail.com : Rakib Howlader : Rakib Howlader
  3. tanjid.fmphs@gmail.com : Tanjid : Tanjid
বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:২১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
দীর্ঘ দিন পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত আসতে পারে আজ বড় জয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরলো টাইগাররা কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অননুমোদিত ফেসবুক পেজ বন্ধ করতে ডিএমপিতে চিঠি কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি মওকুফের নির্দেশ রিসডা ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি-তে আকস্মিক পরিদর্শনে BACI চিফ কো-অর্ডিনেটর পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে দূর্বৃত্তদের হামলা ৪ দফা দাবিতে কুড়িগ্রামে পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন, সমাবেশ ও সড়ক অবরোধ স্থগিত ঘোষণার পরও আন্দোলনে পলিটেকনিক শিক্ষার্থীরা সিলেটে ৪ দফা দাবীতে পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাধা সব ধরনের পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের

কারিগরি, ভোকেশনাল ও কৃষির ২৬০০ শিক্ষকের এমপিও আটকে আছে

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম বৃহস্পতিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১২৭ বার পঠিত

এমপিও’র ঘোষণার পরও দীর্ঘ এক বছর কারিগরি, ভোকেশনাল ও কৃষির ৪৮৩ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ২৬০০ শিক্ষক এমপিও থেকে বঞ্চিত আছেন। শিক্ষকদের অভিযোগ, অধিদপ্তরের গড়িমসির কারণে এখনো বেতন-ভাতা না পেয়ে কষ্টে দিন পার করছেন তারা।

তবে কারিগরি অধিদপ্তর সূত্র জানায়, যাচাই-বাছাই করতে সময় লেগে যাচ্ছে।

জানা যায়, সাড়ে ৯ বছর পর নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তির ঘোষণা দেয় সরকার। ২০১৯ সালের ২৩ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে সারাদেশের ২ হাজার ৭৩০টি বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তি ঘোষণা করেন। এর মাধ্যমে প্রায় ১৫ হাজার শিক্ষক-কর্মচারী সরকারি বেতনের আওতায় আসেন। তবে এক বছর পার হলেও এখনো বেতন ভাতা থেকে বঞ্চিত কারিগরির আড়াই হাজারের বেশি শিক্ষক।

রাজধানীর একটি কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষক নাম প্রকাশ না করার শর্তে সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, সাধারণ ও মাদ্রাসার শিক্ষক-কর্মচারীরা অনেকদিন থেকেই এমপিও’র অর্থ তুলছেন। অথচ কারিগরি, ভোকেশনাল, কৃষি ও বিএম শাখার শিক্ষকদের ইনডেক্স নম্বর এখন পর্যন্ত দেয়নি কারিগরি অধিদপ্তর।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এমপিওভুক্তির জন্য কাগজপত্র চলতি বছর মে মাসে অধিদপ্তরে জমা দেন এসব শিক্ষকরা। এরপর কারিগরি অধিদপ্তর থেকে বলা হয়, বোর্ড থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্টিফিকেট যাচাই বাছাই করে জমা দিতে হবে। অথচ সাত মাস পার হলেও এ বিষয়ে কোনো তথ্য জানানো হয়নি।

একাধিক শিক্ষক সংবাদ মাধ্যম কে অভিযোগ করেন, এ বছর জুলাইয়ের ১ তারিখ থেকে বেতনের আশ্বাস দেয়া হয়েছিলো। অথচ জেনারেল ও মাদ্রাসা শিক্ষকরা এমপিও’র টাকা তুলছেন। কিন্তু আমাদের বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ এখনো নেয়া হয়নি।

কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এক শিক্ষক নেতা বলেন, এরআগে সরকার ঘোষিত দাবি বাস্তবায়নে অধিদপ্তর ঘেরাও কর্মসূচির ঘোষণা দেয়া হয়। সে সময় কারিগরি সচিব দাবি বাস্তবায়নে আশ্বস্ত করেছিলেন; যা এখনো পূরণ হয়নি।

সাতক্ষীরা তালা থানার প্রিন্সিপাল আকতারুজ্জামান কলেজের কৃষি শিক্ষক ভূদেব কুমার সরকার বলেন, অধিদপ্তর থেকে বলা হচ্ছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সার্টিফিকেট যাচাই করতে। অন্যদিকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় বলছে এটা অধিদপ্তরের কাজ। আবার করোনার সময় অনেকদিন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম বন্ধ ছিলো। আমরা জানি না প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার পরও কেনো আটকে আছে আমাদের এমপিও। এখন আমরা যাবো কোথায়?

এ বিষয়ে কারিগরি অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (এমপিও) বিমল দে  বলেন, অনেক শিক্ষকের কাগজে ত্রুটি থাকায় সময় লাগছে। এছাড়াও দেখা গেছে অনেক শিক্ষকের চাকরির নিয়োগেও ঝামেলা রয়েছে।

কতজন শিক্ষকের এমপিও আটকে আছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, গত সপ্তাহে ৭৪ জন শিক্ষকের এমপিও আমরা ছাড় করেছি। আমি এই অধিদপ্তরে নতুন, তবুও আমার জানা মতে ২৬০০ শিক্ষকের এমপিও এখনো আটকে আছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ (এমপিও) উপসচিব মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ভূইয়া বলেন, আমরা ৪৮৩টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিও’র অনুমোদন চলতি বছরের ২৯ এপ্রিল অনুমোদন করেছি। এরপর অধিদপ্তর শিক্ষক-কর্মচারীদের মান্থলি পেমেন্ট অর্ডারটি ইনডেক্স অনুযায়ী নিশ্চিত করবে। যদি কেউ মনে করেন; অধিদপ্তর সমস্যা করছে তবে সেটির অভিযোগ মন্ত্রণালয়ে দিতে হবে। মন্ত্রণালয় অবস্থা বিবেচনা করে ব্যবস্থা নেবে।


সূত্রঃ শিক্ষাবার্তা

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © polytechnicbarta.com
Theme Customized BY LatestNews