1. news.polytechnicbarta@gmail.com : admin :
  2. contact.mdrakib@gmail.com : Rakib Howlader : Rakib Howlader
  3. tanjid.fmphs@gmail.com : Tanjid : Tanjid
শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০৮:২৯ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
শিক্ষার্থীদের কারিগরি ও প্রযুক্তিগত দিকে দক্ষ হতে হবে : শিক্ষা উপমন্ত্রী ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনা আর নেই পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের মাস-খানেকের মধ্যেই পরীক্ষা নেওয়া হবে – শিক্ষামন্ত্রী বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের অধীন বস্ত্র অধিদপ্তরের জুনিয়র ইন্সট্রাক্টর পদের লিখিত পরীক্ষার সময়সূচি এসএসসির ৭৫ ও জেএসসির ২৫ শতাংশে এইচএসসির ফল ১২টায় শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন, আসতে পারে যে সিদ্ধান্ত ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাক্রমের ১ম ও ৩য় পর্ব পরিপূরক পরিবর্তিত পরীক্ষার সময়সূচি মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করতে ‘স্ট্রং পানিশমেন্টে’ যাবে সরকার প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বসুন্ধরা গ্রুপে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বেকার তৈরির কারখানায় পরিণত হয়েছে: শিক্ষা উপমন্ত্রী

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম সোমবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৭২ বার পঠিত

যত্রতত্র অনার্স-মাস্টার্স চালু করা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বেকার তৈরির কারখানায় পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। বুধবার (২১ অক্টোবর) রাতে ‘মুজিববর্ষে শতঘণ্টা মুজিব চর্চার অংশ হিসেবে জাতির পিতা ভাবনা’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন। মেহেরপুর জেলা প্রশাসন এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শিক্ষা ও ভাবনাকে আমরা ধারণ করতে পারিনি। আমরা সস্তা জনপ্রিয়তার জন্য সার্টিফিকেট সর্বস্ব শিক্ষায় মনোনিবেশ করেছিলাম। যত্রতত্র অনার্স-মাস্টার্স চালুর কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বেকার তৈরি করার কারখানায় পরিণত হয়েছে। বঙ্গবন্ধু ব্যবহারিক ও জীবনমুখী পড়াশোনার ওপর গুরুত্ব দিয়েছিলেন। তিনি বিভিন্ন বক্তৃতার মাধ্যমে  কৃষি ও কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষিত হতে যুবসমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন। ছাত্রদের উদ্দেশে বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, ব্রিটিশরা বিএ-এমএ পাস করিয়ে আমাদের কেরানি বানিয়ে দিয়ে গেছে। তাই তোমরা জমিতে গিয়ে শেখো কীভাবে ফসল ফলাতে হয়।’

মুজিব চর্চা প্রসঙ্গে উপমন্ত্রী বলেন, ‘রাষ্ট্রীয়ভাবে বঙ্গবন্ধুকে চর্চা করা উচিত ছিল। কিন্তু বিগত সরকারগুলো ইতিহাস থেকে বঙ্গবন্ধুর নাম পর্যন্ত মুছে ফেলার চেষ্টা করেছে। ৭ মার্চের ভাষণকে মানব ইতিহাসের গুরুত্বপূর্ণ দলিল হিসেবে ইউনেস্কো স্বীকৃতি দিয়েছে। অথচ এক সময় সে ভাষণ পর্যন্ত শুনতে দেওয়া হতো না।’

মেহেরপুরের জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খানের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও যুক্ত ছিলেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের  প্রতিমন্ত্রী  ফরহাদ হোসেন।

সূত্রঃ বাংলা ট্রিবিউন

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © polytechnicbarta.com
Theme Customized BY LatestNews